বৃহস্পতিবার | ২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

স্মরণ : একজন জনাব আলী এমপি : কিছু কথা

প্রকাশিত :
শিব্বির আহমদ আরজু :
হবিগঞ্জ-২ আসনের সাবেক এমপি মরহুম জনাব আলী’র ৩৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ১৯৮৫ সালের ১৫ মে দূরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৪৮ বছর বয়সে ইহধাম ত্যাগ করেন তিনি।
জন্ম : ১৯৩৭ সালের ১লা মে হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলা সদরের দক্ষিণ যাত্রাপাশার ঐতিহ্যবাহী মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন জনাব আলী। পিতার নাম আব্দুর রহমান এবং মাতার নাম ইংরাজ বিবি। ৩ বোন এবং ১ ভাই এর মধ্যে তিনি ছিলেন সবার বড়।
তিনি ১৯৫৩ সালে এল আর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে এস এসসি,১৯৫৫ সালে হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজ থেকে এইচ এসসি পাশ করেন।পরে এল এলবি পাশ করে আইন পেশায় মনোনিবেশ করেন। ১৯৭৯ সালে জাতীয়তাবাদী দল থেকে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
কর্মজীবন : জনাব আলী ছোট বেলা থেকেই তুখোড় মেধাবী ছাত্র এবং মানুষের উপকারে ব্রত ছিলেন। মোক্তার হওয়ার পর তিনি উপার্জিত টাকা থেকে গরীব-অসহায় মানুষদের সব সময় সহযোগিতা করতেন। তিনি নিজ উদ্যোগে জনাব আলী কলেজ এবং জনাব আলী ঈদগাহ প্রতিষ্ঠা করেন।
তাঁর একটাই লক্ষ্য ছিল এতদ অঞ্চলের মানুষদের শিক্ষা ক্ষেত্রে এগিয়ে নেওয়া। যে কারণে দূরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত হওয়ার পরও চিকিৎসা না করে সেই উপার্জিত টাকা কলেজের ফান্ডে জমা দিয়েছিলেন তিনি।
জনাব আলী ডিগ্রি কলেজ থেকে হাজার-হাজার শিক্ষার্থী উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে দেশ এবং জাতির কল্যাণে আজ নিয়োজিত। সেই সাথে কলেজ আজ সরকারিকরণও হয়েছে।
তিনি ছিলেন দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদ এবং জনমানুষের নেতা। তিনি মানুষকে ভালোবাসতেন। দেশ ও জাতির কল্যাণে নিবেদিত ছিলেন। ৩৬ বছর আগে মারা যাওয়ার পর আজও তাঁকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন এখানকার জনমানুষ।
মৃত্যু : ১৯৮৫ সালের ১৫ মে মাত্র ৪৮ বছর বয়সে দূরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত হয়ে হবিগঞ্জস্থ নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন তিনি।
লেখক :
সাধারণ সম্পাদক : বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব, বানিয়াচং, হবিগঞ্জ।
সম্পাদক : তরঙ্গ টোয়েন্টিফোর ডটকম।
আজকের সর্বশেষ সব খবর