শুক্রবার | ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

ওবায়দুল কাদের আমাকে এগোতে দেননি: ছোট ভাই কাদের মির্জা

প্রকাশিত :

তরঙ্গ ডেস্ক : বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা বড় ভাই আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের দিকেও অভিযোগের তীর ছুড়েছেন। তিনি বলেছেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব আমাকে এগোতে দেননি। ঢাকায় ভর্তি হতে গেলে তিনি আমাকে চট্টগ্রামে ভর্তি হতে বলেন। ঢাকায় ভর্তি হলে যদি আমি বড় নেতা হয়ে যাই!
আবদুল কাদের মির্জা রোববার বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে ৯নং ওয়ার্ড হাজিপাড়ায় এক পথসভায় বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন।

আবদুল কাদের মির্জা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই। তিনি নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের টিকিটে নির্বাচন করছেন। তার সাম্প্রতিক বক্তব্যে রাজনৈতিক অঙ্গনে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

রোববারের পথসভায় আবদুল কাদের মির্জা জানান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ তার পক্ষে নেই। ওবায়দুল কাদের সাহেবও আমার সঙ্গে নেই, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগও আমার সঙ্গে নেই। তবে তার পক্ষে জনগণ আছে।

‘ওবায়দুল কাদের সাহেব আমার সাথে নাই, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ আমার সাথে নাই, নোয়াখালী জেলা, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা, বসুরহাট পৌরসভা আওয়ামী লীগ আমার সাথে নাই। ডিসি, এসপি আমার সাথে নাই। তবে আমার সাথে জনগণ আছে’-যোগ করেন কাদের মির্জা।

আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে যারা কাদের মির্জার বিরোধিতা করছে, তাদের ভর্ৎসনা করে তিনি বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেন– আমি অসুস্থ মরে যাব। এ কথাগুলো শুনলে আমি দুর্বল হয়ে যাই। তোদের ওপর আল্লাহর গজব পড়ুক কেন্দ্রীয় থেকে এ পর্যন্ত যারা এসব ষড়যন্ত্রে মেতে আছে।

বসুরহাটের বারবার নির্বাচিত এই মেয়র বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেবকে আগামীতে জিততে হলে আরও সতর্ক হতে হবে। নিজের বউকে সামলাতে হবে। সঙ্গে যারা চলে, তাদের ওপর নজর রাখতে হবে, কে কোথায় থেকে মাসোয়ারা নেয় সেদিকেও লক্ষ রাখতে হবে।

কাদের মির্জা বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব ঘরে ঘরে চাকরি দেবেন বলে অঙ্গীকার করেছিলেন। সে চাকরি এখন কোথায়? এ কথা বললে আমি পাগল, উন্মাদ!

এ সময় ‘শরম যদি লাগে গো… ঘোমটা দিয়ে চলো গো’ বলে একটা ছন্দ বলেন কাদের মির্জা।

দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে যারা তার পক্ষে কাজ করছেন না, তাদের সমালোচনা করেন কাদের মির্জা। তিনি বলেন, সব বেঈমান আর মুনাফেকে ভরে গেছে। এরা আমার ভোটের চিঠিগুলোও বিলি করেনি। শনিবার এক নারী আমাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেছে, প্রশাসন মোবাইল ট্র্যাকিং করে সব তথ্য বের করেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তা হলে ওই মহিলা কত শক্তিশালী ক্ষমতাধর।
সূত্র : দৈনিক যুগান্তর

আজকের সর্বশেষ সব খবর