রবিবার | ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

বানিয়াচংয়ে সড়কের মাঝখানে বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারণ না করেই চলছে পাকাকরণের কাজ

প্রকাশিত :

আব্দাল মিয়া, বানিয়াচং থেকে:  বানিয়াচংয়ে ৫/৬নং বাজার সড়কে বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারণ না করেই চলছে পাকাকরণের কাজ। বাজারের উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের গেইটের উত্তর পার্শ্বে নির্মাণাধীন সড়কের মাঝখানে দন্ডায়মান ১টি ও মধ্য বাজারের চৌরাস্তায় রয়েছে ১টি বৈদ্যুতিক খুঁটি। আর এ খুঁটির উপর দিয়ে রয়েছে হাই ভোল্টেজ সম্পন্ন বিদ্যুতের টানানো লাইন এবং ট্র্যান্সমিটার। এর নিচে দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবাহনসহ প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছেন পথচারীরা। ফলে যে কোন সময় বড় ধরণের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন বাজারবাসীসহ এলাকাবাসী । সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ৫/৬নং বাজারের পূর্বের ব্রীজ থেকে পশ্চিমে চৌরাস্তার দক্ষিণে উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র ও মসজিদের সামন পর্যন্ত প্রায় ১৮০মিটার দৈর্ঘ্য ও ৫.৫ মিটার প্রস্থ সড়কের মাঝে ২টি ঝুঁকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক খুঁটি রেখেই সড়ক প্রশস্থ ও পাকাকরণের কাজ চলছে।

 

ছবি- সড়কের মাঝখানে বৈদ্যুতিক খুঁটি।

এব্যাপারে ৫/৬নং বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি মোঃ মকবুল হোসেন তরঙ্গ টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, বাজারের এ সড়কটি গ্যনিংগঞ্জ বাজার, বড় বাজার ও বাবুর বাজারের সংযোগস্থল। এ সড়ক দিয়ে দৈনন্দিন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা পড়ুয়া শিক্ষার্থী, উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসা রোগী, মসজিদে নামাজপড়া মুসল্লীসহ হাজার হাজার পথচারী ভারী যানবাহনসহ ট্রলি,টমটম,মিশুক, মোটরসাইকেল যাতায়াত করতে সমস্যায় পতিত হচ্ছেন।এতে করে দ্রুত বিদ্যুতের খুঁটি অপসারণ না করলে যে কোন সময় বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন স্থানীয়রা। এ বিষয়ে এম এ এন্টারপ্রাইজ এর ঠিকাদার দুলাল মিয়া জানান, স্থানীয় লোকজন ও বাজারবাসী অভিযোগ দিলে এলজিইডি এবং বিদ্যুৎ বিভাগের সমন্বয়ে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই সড়কের খুঁটি অপসারণ করে কাজ সমাধান করতে পারব। অন্যথায় খুঁটি রেখেই কাজ করতে হবে। এব্যাপারে বানিয়াচং পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম মামুন মোল্লা জানান, আমাদের কাছে এখন পর্যন্ত কোন লিখিত আবেদন আসেনি। আবেদন হাতে পেলে অবশ্যই খুঁটি অপসারণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর