রবিবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

বীর মুক্তিযোদ্ধাকে অবমাননা করার দায়ে বানিয়াচংয়ে এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশিত :

বানিয়াচং(হবিগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আমীর হোসেন মাস্টারকে অবমাননা করার প্রতিবাদে এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) ইফফাত আরা জামান ঊর্মি‘র বিরুদ্ধে মিছিল থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা উপজেলা আয়ামীলীগের সভাপতি আমীর হোসেন মাস্টারের সাথে তীব্র অপমানজনক দূর্ব্যবহার করেছেন। অপমানজনক দূর্ব্যবহারের প্রতিবাদে এই মিছিল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলা আওয়ামীলীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীগণ বড়বাজার ও উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রতিবাদ মিছিল করে মিছিল থেকে বিভিন্ন ধরনের কটাক্ষ করে শ্লোগান দেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ২৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকাল ১১টায় উপজেলার ১নম্বর উত্তর-পূর্ব ইউনিয়নের সাউথপাড়া গ্রামে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আমীর হোসেন মাস্টারের নিজ বাড়ির পুকুর থেকে মাটি উত্তোলন করার সময় এসিল্যান্ড উপস্থিত হয়ে জরিমানা করেন। এ সময় আমীর হোসেন মাস্টার জরিমানার টাকা দিতে দেরী করার কারনে এসিল্যান্ড অসৌজন্যমূলক আচরন করে গাড়িতে তুলে নিতে চাইলে এলাকাবাসী প্রতিবাদমুখর হয়ে তাৎক্ষনিকভাবে প্রতিবাদ জানান। পরবর্তীতে এসিল্যান্ড জরিমানার টাকা আদায় করে অফিসে চলে আসলে আওয়ামীলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বিক্ষুদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ মিছিল করে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ করেন। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল হালিম সোহেল এর সঞ্চালনায় মিছিল শেষে বড়বাজার সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন,ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মওদুদ আল মাহমুদ, কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক সেবুল ঠাকুর,যুবলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক বাবুল মিয়া,যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহিবুর রহমান,ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হাসান শাহীন,সাবেক সভাপতি এজেড এম উজ্জ্বল,সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম চৌধুরী রিপন,ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইম হাসান পুলক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খান,আওয়ামীলীগ নেতা আবুল হোসেন,কৃষ্ণদেব,সাবেক ছাত্রনেতা ফরহাদ সুমন,দেওয়ান সাইফুর রাজা সুমন,তানভীর হোসেন পলাশ প্রমূখ। সমাবেশে বক্তারা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানান, আমীর হোসেন মাস্টার শুধূ আওয়ামীলীগের সভাপতিই না। উনি একজন প্রবীন শিক্ষক ও আদর্শবান লোক। উনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং হাজার হাজার নেতাকর্মীর রাজনৈতিক ও শিক্ষাগুরু। উনি জরিমানার টাকা দেওয়ার কথা স্বীকার করার পরও অপমান করে উনাকে গাড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়ার বিষয়টি সাধারণ কোন ঘটনা না। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে অপমান করার ঘটনায় আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই। সেই সাথে অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে এসিল্যান্ডকে প্রত্যাহারের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এ ব্যাপারে এসিল্যান্ড ইফফাত আরা জামান উর্মির মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে রিসিভ না করায় মন্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

আজকের সর্বশেষ সব খবর