রবিবার | ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে- এমপি আব্দুল মজিদ খান

প্রকাশিত :

শিব্বির আহমদ আরজু/ আব্দাল মিয়া : বানিয়াচংয়ে বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। রোববার ( ৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসরকারি বিল প্রস্তাবক সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় পরিষদের সদস্য ও হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট মোঃ আব্দুল মজিদ খান।

 

ছবি- বৃক্ষরোপণ করছেন এমপি আব্দুল মজিদ খান।

৪নং ইউপি চেয়ারম্যান মো: রেখাছ মিয়ার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বানিয়াচং উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) মাসুদ রানা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন খান, ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমীন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি আব্দুল মজিদ খান বলেন, বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশত বর্ষ উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল আওয়ামীলীগ। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য কোভিড-১৯ এর কারণে সে প্রোগ্রামকে অনেক ছোট করে আনা হয়েছে। তাই জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার দেশকে সবুজের সমারোহ হিসেবে গড়ে তুলতে সারা দেশে ১ কোটি বৃক্ষরোপণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সে সিদ্ধান্ত একযোগে সারাদেশে বাস্তবায়ন হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করেছিলেন একটি স্বপ্ন নিয়ে।

 

ছবি- বৃক্ষরোপণের পর গাছের গোড়ায় পানি দিচ্ছেন এমপি আব্দুল মজিদ খান।

সে স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে দেয়নি ঘাতকরা। মাত্র সাড়ে ৩ বছরের দেশ শাসনের পর ছোট্ট শিশু শেখ রাসেলসহ পরিবারের ২৬জন সদস্যকে হারাতে হয়েছে। ঘাতকরা ভেবেছিল এ দেশে জাতির পিতার স্বপ্ন আর বাস্তবায়ন হবে না। মহান আল্লাহর অপার দয়ায় এ নির্মম ট্রাজেডির আগেই শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহেনা দেশের বাইরে চলে যান। কারবালার নির্মম ঘটনার পর ইয়াজিদ গংরা ভেবেছিল পবিত্র ইসলাম ধর্মকে চিরতরে মুছে দিবে। কিন্তু পারেনি, কখনো পারবেও না। শেখ হাসিনা ও শেখ রেহেনাকে মহান আল্লাহ বাঁচিয়ে রাখায় ২ কন্যা বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরকার বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত করবে ইনশা আল্লাহ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী বলেন, বৃক্ষরোপণ একটি সামাজিক আন্দোলন। সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি ব্যক্তিগতভাবেও বৃক্ষরোপণে এগিয়ে আসতে হবে। শুধু বৃক্ষরোপণ করলেই হবে না, বৃক্ষকে পরিচর্যা করতে হবে। তাই আসুন- যার যার অবস্থান থেকে বৃক্ষরোপণে এগিয়ে আসি।

ছবি- এমপি আব্দুল মজিদ খান, উপজেলা চেয়ারম্যান কাশেম চৌধুরী ও ইউএনও মাসুদরানাসহ অন্যান্যরা।

 

বিশুদ্ধ অক্সিজেন গ্রহণসহ অর্থনৈতিকভাবেও সমৃদ্ধ হই। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানা বলেন, আমি বানিয়াচংকে নান্দনিক বানিয়াচং হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। সে লক্ষে কাজও শুরু করে দিয়েছে। ইতিমধ্যে ১৫টি উপজেলায় ২৩ হাজার বৃক্ষরোপণ করা হয়েছে। হবিগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কে জারুল গাছের চারা রোপণ করে যাচ্ছি। মনে রাখুন- আপনি যদি একটি গরু লালন-পালন করেন তাহলে আপনিই শুধু লাভবান হবেন। আর যদি বৃক্ষরোপণ করেন, তাহলে ফসল, কাঠ এর পাশাপাশি বিশুদ্ধ অক্সিজেন গ্রহণ করবে মানুষসহ প্রাণীকূল। তাই কোথাও যদি দেখেন একটি গাছের চারা গরু, ভেড়া বা ছাগল খেয়ে ফেলছে নি:সংকোচ মনে তাড়িয়ে দিয়ে রক্ষ করবেন বৃক্ষকে।

 

ছবি- বক্তব্য রাখছেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি মাস্টার বিপুল ভূষণ রায়, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া লিলু, দূর্যোগ ও ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, ফজলু মিয়া ম্যানেজার, উপজেলা পরিষদের সিএ ফয়জুর রহমান রুবেল, আবুল ফজল, ছামির আলী, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি মোঃ ছায়েব আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক মারুফ আহমেদ ও ফয়ছল আহমেদ, ইশতিয়াক হোসেন লেমন, জাহাঙ্গির মেম্বার, এম নুরুল ইসলাম, মাস্টার মনিরুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা আবুল কাশেম, আব্দুস ছালাম, জিতু মিয়াসহ বিভিন্ন গণ্যমাধ্যমের সাংবাদিকবৃন্দ।

 

ছবি- শরীফখানী এলাকায় নিজ হাতে বৃক্ষরোপণ করছেন ৪নং ইউপি চেয়ারম্যান মো: রেখাছ মিয়া।

উল্লেখ্য, এল আর সরকারি উচ্চবিদ্যালয় ও শরীফখানীসহ বিভিন্ন জায়গায় ২শ’ ফলদ ও বনজ গাছ রোপণ করা হয়েছে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর