বুধবার | ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

বিশ্ব পর্যটন সংস্থার সদর দপ্তরের শহর মাদ্রিদ

প্রকাশিত :

সাইফুল আমিন, স্পেনের মাদ্রিদ থেকে : ইউরোপ মহাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমভাগের দেশ স্পেনের রাজধানী। শহরটি স্পেনের মধ্যভাগে অবস্থিত। মাদ্রিদ প্রদেশটিকে স্পেনের একটি আংশিক স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। সমুদ্র সমতল থেকে ৬৩৫ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত,তাই এটি ইউরোপের সবচেয়ে উঁচুতে অবস্থিত রাজধানীগুলির একটি। মাদ্রিদের পশ্চিম ও দক্ষিণ দিকে মানসানারেস নদী দ্বারা বেষ্টিত। এবং উত্তরে পাইন বৃক্ষে আবৃত গুয়াদাররামা পর্বতশ্রেণী অবস্থিত। মাদ্রিদে আধুনিক স্থাপত্যশৈলীতে নির্মিত বহু ভবন থাকলেও শহরটি তার বিভিন্ন ঐতিহাসিক এলাকা ও সড়কগুলির অবয়ব ও সামগ্রিক অনুভূতি আজও ধরে রেখেছে। পুয়ের্তা দেল সোল বা “সূর্যের প্রবেশদ্বার” নামক চত্বরটি মাদ্রিদের হৃৎকেন্দ্র। প্লাসা দে মাইয়োর,প্রাক্তন রাজপ্রাসাদ,রেতিরো পার্ক সহ মাদ্রিদে ৪০টিরও বেশি নগর উদ্যান,জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত, মাদ্রিদের উদ্ভিদবিদ্যা উদ্যানে ৩০ হাজারের বেশি প্রজাতির উদ্ভিদ আছে। মাদ্রিদের প্রাদো জাদুঘরে ইউরোপের শ্রেষ্ঠ চিত্রকলা প্রদর্শনীগুলির একটি অবস্থিত।এছাড়া রেইনা সোফিয়া জাদুঘর এই মাদ্রিদেই।

 

মিনি বাংলাদেশ নামে পরিচিত লাভাপিয়েছ এই মাদ্রিদে অবস্থিত,যেখানে প্রায় ১৫ হাজার বাংলাদের বসবাস। নব্য-ধ্রুপদী ঘরানায় নির্মিত প্লাসা সিবেলেস চত্বর ও এর ফোয়ারাটিকে মাদ্রিদের প্রতীক হিসেবে গণ্য করা হয়। স্পেনের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলি এই মাদ্রিদে অবস্থিত। মাদ্রিদে বহু গ্রন্থাগার রয়েছে,যাদের মধ্যে স্পেনের জাতীয় গ্রন্থাগার ও স্পেনের রাজপ্রাসাদের গ্রন্থাগার উল্লেখ্যযোগ্য। মাদ্রিদ স্পেনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক ও শিল্পকেন্দ্র। বার্সেলোনা শহরের পরে মাদ্রিদ স্পেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শিল্পশহর। স্পেনের বৃহত্তম সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলির প্রধান কার্যালয় মাদ্রিদে। এখানে বিমান নির্মাণের কারখানা রয়েছে, এছাড়া স্পেনের ব্যাংক ও বীমা ব্যবস্থার কেন্দ্র মাদ্রিদ। এখানে বহু পর্যটক ঘুরতে আসেন। জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থার প্রধান কার্যালয় অবস্থিত এই মাদ্রিদে। ২০১৭ সালে মাদ্রিদ বিশ্বের সেরা ১০টি বাসযোগ্য নগরীর একটি হিসেবে মর্যাদা পায়। ১৫৬১ সালে স্পেনের রাজা ২য় ফিলিপ স্পেনের রাজ দরবার মাদ্রিদে স্থানান্তরিত করেন এবং ১৬০৭ সালে রাজা ৩য় ফিলিপ মাদ্রিদকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্পেনের স্থায়ী রাজধানীর মর্যাদা দেন। ১৯৫০-৬০এর দশকে শহরটি ব্যাপক বিস্তার লাভ করে।

 

আজকের সর্বশেষ সব খবর