রবিবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

বানিয়াচংয়ে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বিধবা ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ দায়ের

প্রকাশিত :
নিজস্ব প্রতিনিধি । বানিয়াচং উপজেলায় সাবেক ইউপি সদস্য সামছুর বিরুদ্ধে বিধবা ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে ভুক্তভোগী বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ করেছেন।
উপজেলার কাগাপাশা ইউনিয়নের বাগাহাতা গ্রামের মৃত জিনু মিয়ার স্ত্রী জহুরা খাতুন মঙ্গলবার (৩০ জুন) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত এ অভিযোগ করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কাগাপাশা ইউনিয়নের
২ নং ওয়ার্ডের বাগহাতা গ্রামের সাবেক ইউপি মেম্বার মৃত ছায়েব আলীর পুত্র সাবেক মেম্বার সামছু মিয়ার আমলে একি গ্রামের
অস্বচ্ছল গরিব বিধবা ভাতার কার্ড করে দেওয়ার নাম করে তার কাছ থেকে উৎকোচের বিনিময়ে একটি কার্ড দেওয়ার শিকার করেন এবং তার ছবি এবং আইডি কার্ড নিয়ে যান।
কিন্তু ওই ইউপি সদস্য তার নিজের হাতে কার্ডটি না দিয়ে তার টিপসই জাল করে গত ৪ বছরের সম্পন্ন টাকা এবং এ বছরের চলতি মাসের ৯ জুন পর্যন্ত ৬ হাজার টাকা ব্যাংক থেকে তুলে আত্মসাৎ করেছেন।
অভিযোগ কারী জহুরা খাতুন জানান, আমার বিধবা ভাতার কার্ড নিয়ে আজ থেকে ৪ বছরের সব টাকা ইউপি সদস্য সামছু মিয়া আত্মসাৎ করে এবং নতুন কায়দার আমাকে বই হারিয়েছে বলে সে আমাকে দিয়ে থানায় জিডি করে এ বছরের এপ্রিল মাসে আমার ভাতার কার্ডসহ ১০০০টাকা আমাকে দিয়ে বলে আগামী মাসে বানিয়াচং সোনালী ব্যাংকে গিয়ে তুমি টাকা তুলে নিয়ে আসিও। এর ধারাবাহিকতায় চলতি মাসের ১৪ জুন বানিয়াচংয়ে ব্যাংকে গিয়ে দেখতে পাই আমার একাউন্টে কোনো টাকা নেই। টাকা কোথায় গেলো আমি জানতে চাইলে ব্যাংকের লোকেরা বলছে চলতি মাসের ৯ জুন টাকা এ নামের একাউন্ট থেকে নেওয়া হয়েছে। আমি বাড়িতে এসে সামছুর সাথে কথা বললে সে শিকার করে আমাকে চার বছরের সম্পন্ন টাকা দিবে বলে আমাকে তার বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয় এবং দেই দিচ্ছি বলে সময় পার করতে শুরু করে। পরে আমি নিরুপায় হয়ে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহি অফিসারের বরাবরে একটি  অভিযোগ দায়ের করি।
এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ রানা জানান, অভিযোগের কপি এখনও হাতে এসে পৌঁছায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।

 

আজকের সর্বশেষ সব খবর