শনিবার | ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

এবারের বাজেটে কৃষিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে- চেয়ারম্যান কাশেম চৌধুরী

প্রকাশিত :

মখলিছ মিয়া : কৃষি ও কৃষক হচ্ছে আমাদের প্রাণ, এবারের বাজেটেও কৃষিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। কৃষি ও কৃষকরে উন্নয়নে যা যা করার প্রয়োজন সবই করা হবে। বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার এক্ষেত্রে শতভাগ আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাচ্ছেন বর্তমান করোনার পরিস্থিতিতে আমাদের ১ইঞ্চি জায়গাও যেন অব্যবহৃত না থাকে, বাড়ীর আঙ্গিনা থেকে শুরু করে একেবারে মাঠ পর্যন্ত সব জমিই যেন আমরা কৃষি কাজের জন্য ব্যবহার করি।

আমাদের বাড়ীর আঙ্গিনাকে আমরা যেন একেকটি কৃষি খামারে রূপান্তরিত করি। প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষনা কে বাস্তবায়নে জনপ্রধিনিধি থেকে শুরু করে সরকারী চাকুরীজীবিসহ সবাই একযোগে কাজ করে যাচ্ছে। একাজে আমাদের কৃষক ভাইদেরও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।

৩০ জুন মঙ্গলবার সকালে উপজেলা কৃষি বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত ২০১৯-২০ অর্থ বছর খরিপ-১/২০২০-২১ মৌসুমে পারিবারিক কৃষির আওতায় সবজি পুষ্টি বাগান স্থাপনের জন্য প্রনোদনা কর্মসূচীর মাধ্যমে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে সবজি বীজ, চারা বিতরণ ও নগদ অর্থ সহায়তা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী একথাগুলো বলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুদ রানা’র সভাপতিত্বে ও কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ দুলাল উদ্দিন এর সঞ্চলনায় এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার। অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্পসারণ কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম, মেধা বিকাশ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক  ভানু চন্দ্র চন্দ. উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আবু হাশেম রাফে প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুদ রানা বলেন, কৃষি হচ্ছে আমাদের অহংকার, এক সময় আমরা ভিক্ষুকের মতো অন্য জায়গা থেকে হাত পেতে অনেক কিছু আনতে হত, বর্তমানে আমাদের সেই অবস্থা এখন আর নেই, আমরা এখন আমাদের কৃষকের বদৌলতে বিভিন্ন দেশে কৃষি পণ্য রপ্তানী করতে পারছি, এটা সত্যিই আমাদের জন্য গৌরবের বিষয়। ইনশাল্লাহ আমাদের বাংলাদেশ আরো বহুদূর এগিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, সরকার কৃষককে যে প্রনোদনা দিচ্ছে, কৃষক যেন সেটাকে সঠিকভাবে ব্যবহার করেন, আমরা সব সময় আপনাদের পাশে আছি এবং থাকবো। তিনি আরো বলেন, আমার বাড়ী সুনামগঞ্জ সেই সুবাদে আমিও হাওর এলাকার সন্তান, কৃষি ও কৃষকের বিষয়ে আমার অনেক ধারণা আছে, আপনাদের সহযোগিতায় সেই ধারণাকে কাজে লাগাতে চাই।  উল্লেখ্য, উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন থেকে ৩শ ৮৪জন কৃষকের মধ্যে এ প্রনোদনা প্রদান করা হয়েছে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর