রবিবার | ১লা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

চুনারুঘাটে পর্যটন কেন্দ্র গ্রিনল্যান্ড পার্কে ১৮ হাজার বৃক্ষরোপণ

প্রকাশিত :

মোক্তাদির হাসান সেবুল: হবিগঞ্জ জেলার পাহাড়বেষ্টিত চুনারুঘাট উপজেলার পারকুল পাহাড়ে অবস্থিত গ্রিণল্যান্ড পার্ক। পার্কটিকে চির সবুজে সাজিয়ে তুলতে এ মৌসুমে প্রায় ১৮ হাজার গাছের চারা রোপণের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। এসব চারার মধ্যে‌ রয়েছে ফলজ ও বনজ বৃক্ষ।

এ পার্কের মালিক আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাবেক প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের বড় ভাই লন্ডন প্রবাসী সৈয়দ এমদাদুল হক সোহাগ। তার নির্দেশনায় পার্কের পরিচালক সাংবাদিক কাজী মাহমুদুল হক সুজন এ উদ্যোগ বাস্তবায়নে কাজ করছেন।

ইতিমধ্যে লিচু ১২শ’, পেয়ারা ৮শ’, কাঁঠাল ২ হাজার ও আম ১ হাজারসহ নানা প্রজাতির কাঠের গাছ ১৩ হাজার রোপণ করা হয়।

এ বিষয়ে কাজী মাহমুদুল হক সুজন জানান, পার্কটিকে মনের মতো করে সাজানো হচ্ছে। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় গাছগুলো সুন্দরভাবে বেড়ে উঠছে। গাছগুলো বড় হলে এ পার্কটি চির সবুজের রাজ্যে পরিণত হবে।

ইতোমধ্যে এ পার্কটি সিলেট বিভাগে অন্যতম পর্যটন স্পট হিসেবে স্থান করে নিয়েছে। তবে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে এ পার্কে পর্যটক আসা বন্ধ রয়েছে।

পরিচালক আরো জানান, আগে লাগানো আম, কাঁঠাল ও লিচু গাছ থেকে ফল উৎপাদন হচ্ছে। বর্তমানে এ পার্ককে ফলজ ও বনজ বৃক্ষ দিয়ে সাজানো হচ্ছে। গাছগুলো বড় হলে সেগুলো থেকেও বিষমুক্ত ফল আহরণ করা যাবে।

উপজেলা কৃষি অফিসার মো. জালাল উদ্দিন সরকার জানান, পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষ রোপণের বিকল্প নেই। পার্কে এ ধরণের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। এর মাঝে ফলের গাছ রোপণ করার বহুবিধ লাভ রয়েছে। পরিবেশের ভারসাম্য বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ফলও পাওয়া যাচ্ছে। যা মানুষের পুষ্টির চাহিদা পূরণ করবে। এছাড়া, গাছের পাতা পচে তৈরি হবে সার। যা পরিবেশের জন্য অনেক লাভজনক।

জেলা সহকারি বন সংরক্ষক মো. মারুফ হোসেন জানান, ফলজ ও বনজ বৃক্ষ রোপণ করায় যেমন পার্কটির সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে, তেমনি তা দেশের জন্য মঙ্গলজনক। পরিবেশ রক্ষায় গাছ রোপণ অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

 

আজকের সর্বশেষ সব খবর