ঢাকা ০২:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত Logo গ্যানিংগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে নানা আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উদযাপন Logo মহান বিজয় দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব Logo দেশবাসীকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‘বানিয়াচং ইসলামি নাগরিক ফোরাম’ নেতৃবৃন্দ Logo নূরানী শিক্ষা বোর্ডে মেধা তালিকায় ২য় হয়েছে গ্যানিংগঞ্জ বাজার নূরানী মাদ্রাসার ছাত্রী মুনতাহা আক্তার Logo বানিয়াচংয়ে ১২কেজি গাঁজাসহ কুখ্যাত ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo বানিয়াচং শাহজালাল কে.জি স্কুল ২০২৩ বৃত্তি পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য Logo চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন ডা. ইলিয়াছ একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত Logo ৪০তম তাফসিরুল কোরআন মহা সম্মেলন সফল করায় আলহাজ্ব রেজাউল মোহিত খানের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ Logo ইফার সাবেক ফিল্ড অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের মৃত্যুতে জেলা মউশিক কল্যাণ পরিষদ নেতৃবৃন্দের শোক

সাপাহারে বোরো চাষে ব্যস্ত কৃষককূল

  • তরঙ্গ ২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১০:৪১:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১
  • ১৭৫ বার পড়া হয়েছে

মনিরুল ইসলাম, সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: কৃষি নির্ভরশীল এলাকা হিসেবে ইতমধ্যে দেশে খ্যাতি অর্জন করেছে নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলা। এরই ধারাবাহিকতায় এই অঞ্চলে বিভিন্ন জাতের কৃষিপণ্য চাষাবাদ হয়। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো বোরো ধান চাষ। গত মৌসুমে কৃষক ধানের দাম আশানুরূপ পাওয়ার ফলে এবার নওগাঁর সাপাহারে ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে বোরো ধান চাষ করছেন এলাকার চাষীরা। চলতি মৌসুমে বোরো ধান লাগানোর জন্য জমি প্রস্তুত ও ধানের চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা।

সকালের তীব্র শীতকে উপক্ষো করে সন্ধ্যা পর্যন্ত ধান রোপণে ব্যস্ততার মাঝে সময় অতিবাহিত করছেন চাষীরা। এলাকা ঘুরে দেখা যায়, কেউ জমির আইলে কোদাল দিয়ে জমি তৈরী কিংবা জৈব সার বিতরণ কাজে ব্যস্ত। কেউ সেচের জন্য ড্রেন নির্মাণ কিংবা পাম্পের বা শ্যালো মেশিনের চালানোর পরিবেশ তৈরী করছেন। আবার অনেকে তৈরি জমিতে পানি সেচ দিয়ে ভিজিয়ে রাখছেন। আনুষাঙ্গিক কাজ শেষ করে কেউ বা বীজতলা থেকে চারা তুলে তা রোপণ করছেন জমিতে।বোরো ধান আবাদের জন্য এলাকার কৃষককূল যেন রীতিমতো প্রতিযোগিতায় নেমেছেন।

গত মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন ও ন্যায্য মূল্য পাওয়ার ফলে এ বছরে বোরো ধান চাষে অধিক আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। অন্যান্য বছর কোল্ড ইনজুরিতে পচন লেগে বীজ চারা নষ্ট হয়ে যেতো। কিন্তু এবছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বোরো চারাও বেশ ভালো হয়েছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এ বছরে চলতি মৌসুমে উপজেলার মোট ৮ হাজার ৪ শত ৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকার ফলে এ মৌসুমে প্রতি হেক্টরে ফলন হতে পারে ৬ দশমিক ৫০ মেট্রিক টন। চলতি মৌসুমে ধানের চারার রোগ বালাই না থাকার ফলে চাষাবাদে অনূকলতা এনেছে বলে জানান উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিপ্তর। সব মিলিয়ে গত বছরের ন্যায় চলতি বছরে ধানের দাম ভালো থাকলে এবং আবহাওয়ার পরিবর্তন না হলে খুব শিগগিরই বোরো ধান রোপণ শেষ হবে এবং কৃষকেরা কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন এলাকার বোরো চাষীরা।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত

সাপাহারে বোরো চাষে ব্যস্ত কৃষককূল

আপডেট সময় ১০:৪১:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১

মনিরুল ইসলাম, সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: কৃষি নির্ভরশীল এলাকা হিসেবে ইতমধ্যে দেশে খ্যাতি অর্জন করেছে নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলা। এরই ধারাবাহিকতায় এই অঞ্চলে বিভিন্ন জাতের কৃষিপণ্য চাষাবাদ হয়। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো বোরো ধান চাষ। গত মৌসুমে কৃষক ধানের দাম আশানুরূপ পাওয়ার ফলে এবার নওগাঁর সাপাহারে ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে বোরো ধান চাষ করছেন এলাকার চাষীরা। চলতি মৌসুমে বোরো ধান লাগানোর জন্য জমি প্রস্তুত ও ধানের চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা।

সকালের তীব্র শীতকে উপক্ষো করে সন্ধ্যা পর্যন্ত ধান রোপণে ব্যস্ততার মাঝে সময় অতিবাহিত করছেন চাষীরা। এলাকা ঘুরে দেখা যায়, কেউ জমির আইলে কোদাল দিয়ে জমি তৈরী কিংবা জৈব সার বিতরণ কাজে ব্যস্ত। কেউ সেচের জন্য ড্রেন নির্মাণ কিংবা পাম্পের বা শ্যালো মেশিনের চালানোর পরিবেশ তৈরী করছেন। আবার অনেকে তৈরি জমিতে পানি সেচ দিয়ে ভিজিয়ে রাখছেন। আনুষাঙ্গিক কাজ শেষ করে কেউ বা বীজতলা থেকে চারা তুলে তা রোপণ করছেন জমিতে।বোরো ধান আবাদের জন্য এলাকার কৃষককূল যেন রীতিমতো প্রতিযোগিতায় নেমেছেন।

গত মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন ও ন্যায্য মূল্য পাওয়ার ফলে এ বছরে বোরো ধান চাষে অধিক আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। অন্যান্য বছর কোল্ড ইনজুরিতে পচন লেগে বীজ চারা নষ্ট হয়ে যেতো। কিন্তু এবছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বোরো চারাও বেশ ভালো হয়েছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এ বছরে চলতি মৌসুমে উপজেলার মোট ৮ হাজার ৪ শত ৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকার ফলে এ মৌসুমে প্রতি হেক্টরে ফলন হতে পারে ৬ দশমিক ৫০ মেট্রিক টন। চলতি মৌসুমে ধানের চারার রোগ বালাই না থাকার ফলে চাষাবাদে অনূকলতা এনেছে বলে জানান উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিপ্তর। সব মিলিয়ে গত বছরের ন্যায় চলতি বছরে ধানের দাম ভালো থাকলে এবং আবহাওয়ার পরিবর্তন না হলে খুব শিগগিরই বোরো ধান রোপণ শেষ হবে এবং কৃষকেরা কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন এলাকার বোরো চাষীরা।