ঢাকা ০৩:৩৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত Logo গ্যানিংগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে নানা আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উদযাপন Logo মহান বিজয় দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব Logo দেশবাসীকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‘বানিয়াচং ইসলামি নাগরিক ফোরাম’ নেতৃবৃন্দ Logo নূরানী শিক্ষা বোর্ডে মেধা তালিকায় ২য় হয়েছে গ্যানিংগঞ্জ বাজার নূরানী মাদ্রাসার ছাত্রী মুনতাহা আক্তার Logo বানিয়াচংয়ে ১২কেজি গাঁজাসহ কুখ্যাত ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo বানিয়াচং শাহজালাল কে.জি স্কুল ২০২৩ বৃত্তি পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য Logo চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন ডা. ইলিয়াছ একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত Logo ৪০তম তাফসিরুল কোরআন মহা সম্মেলন সফল করায় আলহাজ্ব রেজাউল মোহিত খানের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ Logo ইফার সাবেক ফিল্ড অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের মৃত্যুতে জেলা মউশিক কল্যাণ পরিষদ নেতৃবৃন্দের শোক

বানিয়াচংয়ে ২ গ্রামের ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা নিস্পত্তি করে দিয়েছেন এমপি আব্দুল মজিদ খান

  • তরঙ্গ ২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১২:৫২:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১
  • ১৯৯ বার পড়া হয়েছে

শিব্বির আহমদ আরজু : বানিয়াচংয়ে মজলিশপুর ও কামালখানী ২ গ্রামের ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনাটি আপোষে নিস্পত্তি করা করা হয়েছে।শনিবার (২ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় আইডিয়েল কলেজ মাঠে হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এর সভাপতিত্বে সালিশ বিচারে ২ গ্রামের দীর্ঘদিনের বিরোধটি নিস্পত্তি করা হয়।

ছবি-মঞ্চে উপবিষ্ট এমপি আব্দুল মজিদ খান,ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ কাশেম চৌধুরী ও সাবেক চেয়ারম্যান শেখ বশীর আহমদ।

সূত্রে জানা যায়, বানিয়াচংয়ে কানিভাঙ্গা হাওড়ে ১৮ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮টায় জলাশয়ে বাঁধ দেওয়াকে কেন্দ্র করে মাইকে ঘোষণা দিয়ে কামাল খানী ও মজলিশপুর গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত অর্ধশত নারী-পুরুষ আহত হন। এ রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষ অব্যাহত থাকে ১টা পর্যন্ত। এতে করে উভয় পক্ষকে আসামী করে পুলিশ এসল্ট মামলা দায়ের করে বানিয়াচং থানা পুলিশ। ২ গ্রামের এ সংঘর্ষের বিষয়টি নিস্পত্তি করতে উদ্যোগ নেন এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান।

 

ছবি-সালিশ বিচারে বক্তব্য রাখছেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী।

এ লক্ষে গত ২০ ডিসেম্বর রাতে বানিয়াচং বড়বাজার প্রেসক্লাবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে সালিশ বিচারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এতে উভয় পক্ষ সম্মতি গ্রহণ করে। এর ফলশ্রুতিতে শনিবার হাজার-হাজার মানুষের উপস্থিতিতে বিরোধটি নিস্পত্তি করে দেওয়া হয়। এতে করে জনমনে স্বস্তি বিরাজ করছে। সালিশ বিচারে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবন, বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী, সাবেক চেয়ারম্যান শেখ বশির আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমীর হোসেন মাস্টার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসেন খান বাহার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার, বড় বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন, আঙ্গুর মিয়া,

 

ছবি-সালিশ বিচারে উপস্থিত জনতার একাংশ।

সাবেক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান খান, ২নং উত্তর-পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান ওয়ারিশ উদ্দিন খান, ১নং উত্তর-পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন, ৩নং দক্ষিণ-পূর্ব ইউপিচেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান, আলীয়া মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল ও বিশিষ্ট লেখক কাজী মুফতি আতাউর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাহজাহান মিয়া,আওয়ামী লীগ নেতা শাহ নেওয়াজ ফুল মিয়া প্রমুখ।

 

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত

বানিয়াচংয়ে ২ গ্রামের ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা নিস্পত্তি করে দিয়েছেন এমপি আব্দুল মজিদ খান

আপডেট সময় ১২:৫২:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ জানুয়ারী ২০২১

শিব্বির আহমদ আরজু : বানিয়াচংয়ে মজলিশপুর ও কামালখানী ২ গ্রামের ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনাটি আপোষে নিস্পত্তি করা করা হয়েছে।শনিবার (২ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় আইডিয়েল কলেজ মাঠে হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এর সভাপতিত্বে সালিশ বিচারে ২ গ্রামের দীর্ঘদিনের বিরোধটি নিস্পত্তি করা হয়।

ছবি-মঞ্চে উপবিষ্ট এমপি আব্দুল মজিদ খান,ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ কাশেম চৌধুরী ও সাবেক চেয়ারম্যান শেখ বশীর আহমদ।

সূত্রে জানা যায়, বানিয়াচংয়ে কানিভাঙ্গা হাওড়ে ১৮ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮টায় জলাশয়ে বাঁধ দেওয়াকে কেন্দ্র করে মাইকে ঘোষণা দিয়ে কামাল খানী ও মজলিশপুর গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত অর্ধশত নারী-পুরুষ আহত হন। এ রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষ অব্যাহত থাকে ১টা পর্যন্ত। এতে করে উভয় পক্ষকে আসামী করে পুলিশ এসল্ট মামলা দায়ের করে বানিয়াচং থানা পুলিশ। ২ গ্রামের এ সংঘর্ষের বিষয়টি নিস্পত্তি করতে উদ্যোগ নেন এমপি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান।

 

ছবি-সালিশ বিচারে বক্তব্য রাখছেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী।

এ লক্ষে গত ২০ ডিসেম্বর রাতে বানিয়াচং বড়বাজার প্রেসক্লাবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে সালিশ বিচারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এতে উভয় পক্ষ সম্মতি গ্রহণ করে। এর ফলশ্রুতিতে শনিবার হাজার-হাজার মানুষের উপস্থিতিতে বিরোধটি নিস্পত্তি করে দেওয়া হয়। এতে করে জনমনে স্বস্তি বিরাজ করছে। সালিশ বিচারে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবন, বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী, সাবেক চেয়ারম্যান শেখ বশির আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমীর হোসেন মাস্টার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসেন খান বাহার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার, বড় বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন, আঙ্গুর মিয়া,

 

ছবি-সালিশ বিচারে উপস্থিত জনতার একাংশ।

সাবেক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান খান, ২নং উত্তর-পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান ওয়ারিশ উদ্দিন খান, ১নং উত্তর-পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন, ৩নং দক্ষিণ-পূর্ব ইউপিচেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান, আলীয়া মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল ও বিশিষ্ট লেখক কাজী মুফতি আতাউর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাহজাহান মিয়া,আওয়ামী লীগ নেতা শাহ নেওয়াজ ফুল মিয়া প্রমুখ।