ঢাকা ০১:০৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত Logo গ্যানিংগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে নানা আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উদযাপন Logo মহান বিজয় দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব Logo দেশবাসীকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‘বানিয়াচং ইসলামি নাগরিক ফোরাম’ নেতৃবৃন্দ Logo নূরানী শিক্ষা বোর্ডে মেধা তালিকায় ২য় হয়েছে গ্যানিংগঞ্জ বাজার নূরানী মাদ্রাসার ছাত্রী মুনতাহা আক্তার Logo বানিয়াচংয়ে ১২কেজি গাঁজাসহ কুখ্যাত ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo বানিয়াচং শাহজালাল কে.জি স্কুল ২০২৩ বৃত্তি পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য Logo চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন ডা. ইলিয়াছ একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত Logo ৪০তম তাফসিরুল কোরআন মহা সম্মেলন সফল করায় আলহাজ্ব রেজাউল মোহিত খানের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ Logo ইফার সাবেক ফিল্ড অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের মৃত্যুতে জেলা মউশিক কল্যাণ পরিষদ নেতৃবৃন্দের শোক

বানিয়াচংয়ে সংবাদ প্রকাশের পর বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিল প্রশাসন

  • তরঙ্গ ২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০১:৪৭:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল ২০২১
  • ১৩৩ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি : “বানিয়াচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন, প্রশাসনের ভূমিকায় হতাশ এলাকাবাসী” মঙ্গলবার (৬এপ্রিল) দৈনিক “আমার হবিগঞ্জ”পত্রিকার অনলাইন ও প্রিন্ট ভার্সনে সংবাদটি প্রকাশের পর বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানার নির্দেশে আজ মঙ্গলবার সার্ভেয়ার তপন দেব ঘটনাস্থলে গিয়ে বালু উঠানোর পাইপ ও বালু উঠানোর সত্যতা পেয়ে উত্তোলন বন্ধ করে দেন।

এসময় সার্ভেয়ার তপন দেব ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগি মঈন উদ্দিন ও তোফায়েলকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত ওই এলাকায় মাটি এবং বালু উত্তোলন বন্ধ থাকবে বলে জানিয়ে দেন। অন্যদিকে মার্কূলী নৌ ফাঁড়ির আইসি এসআই হাসনাতকে কেউ যাতে এখানে আর কোন ধরণের কর্মকান্ড না করে সেদিকে নজর রাখার জন্য বলা হয়। তবে যার নেতৃত্বে বালু উত্তোলন করা হয়েছে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান সেখানে ছিলেন না। পরবর্তীতে সার্ভেয়ার ইউপি কার্যালয়ে এসে তার সাথে দেখা করার পর তিনি সার্ভেয়ার তপন দেবকে জানান,আমি বালু উত্তোলন করিনি। আর এটা আমার কাজও না।

প্রসঙ্গত, বানিয়াচং উপজেলার ৫নং দৌলতপুর ইউনিয়নের মার্কুলি বাজারের পশ্চিমে হিলালনগর গ্রামের উত্তর পার্শ্বে কুশিয়ারা নদীতে অবৈধ ড্রেজার বসিয়ে বালু বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী মহল। এই বালু উত্তোলনের ফলে আশেপাশের বসতবাড়ি, রাস্তাঘাটসহ হিলালনগর গ্রামের প্রায় ২৫০ পরিবার নদী ভাঙ্গনের শিকার হচ্ছেন। স্থানীয় প্রশাসন ও ভূমি অফিসের নজরদারি না থাকায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ড্রেজার দিয়ে মাটি ও বালু উত্তোলন চালিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী মহল।

এতে এলাকার ফসলি জমি নষ্টের পাশাপাশি ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ। এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ থাকলেও প্রভাবশালী ড্রেজার সিন্ডিকেটের ভয়ে কেউ মুখ খোলার সাহস পাচ্ছে না।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত

বানিয়াচংয়ে সংবাদ প্রকাশের পর বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিল প্রশাসন

আপডেট সময় ০১:৪৭:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি : “বানিয়াচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন, প্রশাসনের ভূমিকায় হতাশ এলাকাবাসী” মঙ্গলবার (৬এপ্রিল) দৈনিক “আমার হবিগঞ্জ”পত্রিকার অনলাইন ও প্রিন্ট ভার্সনে সংবাদটি প্রকাশের পর বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানার নির্দেশে আজ মঙ্গলবার সার্ভেয়ার তপন দেব ঘটনাস্থলে গিয়ে বালু উঠানোর পাইপ ও বালু উঠানোর সত্যতা পেয়ে উত্তোলন বন্ধ করে দেন।

এসময় সার্ভেয়ার তপন দেব ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগি মঈন উদ্দিন ও তোফায়েলকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত ওই এলাকায় মাটি এবং বালু উত্তোলন বন্ধ থাকবে বলে জানিয়ে দেন। অন্যদিকে মার্কূলী নৌ ফাঁড়ির আইসি এসআই হাসনাতকে কেউ যাতে এখানে আর কোন ধরণের কর্মকান্ড না করে সেদিকে নজর রাখার জন্য বলা হয়। তবে যার নেতৃত্বে বালু উত্তোলন করা হয়েছে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান সেখানে ছিলেন না। পরবর্তীতে সার্ভেয়ার ইউপি কার্যালয়ে এসে তার সাথে দেখা করার পর তিনি সার্ভেয়ার তপন দেবকে জানান,আমি বালু উত্তোলন করিনি। আর এটা আমার কাজও না।

প্রসঙ্গত, বানিয়াচং উপজেলার ৫নং দৌলতপুর ইউনিয়নের মার্কুলি বাজারের পশ্চিমে হিলালনগর গ্রামের উত্তর পার্শ্বে কুশিয়ারা নদীতে অবৈধ ড্রেজার বসিয়ে বালু বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী মহল। এই বালু উত্তোলনের ফলে আশেপাশের বসতবাড়ি, রাস্তাঘাটসহ হিলালনগর গ্রামের প্রায় ২৫০ পরিবার নদী ভাঙ্গনের শিকার হচ্ছেন। স্থানীয় প্রশাসন ও ভূমি অফিসের নজরদারি না থাকায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ড্রেজার দিয়ে মাটি ও বালু উত্তোলন চালিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী মহল।

এতে এলাকার ফসলি জমি নষ্টের পাশাপাশি ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ। এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ থাকলেও প্রভাবশালী ড্রেজার সিন্ডিকেটের ভয়ে কেউ মুখ খোলার সাহস পাচ্ছে না।