ঢাকা ০১:০৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত Logo গ্যানিংগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে নানা আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উদযাপন Logo মহান বিজয় দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব Logo দেশবাসীকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‘বানিয়াচং ইসলামি নাগরিক ফোরাম’ নেতৃবৃন্দ Logo নূরানী শিক্ষা বোর্ডে মেধা তালিকায় ২য় হয়েছে গ্যানিংগঞ্জ বাজার নূরানী মাদ্রাসার ছাত্রী মুনতাহা আক্তার Logo বানিয়াচংয়ে ১২কেজি গাঁজাসহ কুখ্যাত ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo বানিয়াচং শাহজালাল কে.জি স্কুল ২০২৩ বৃত্তি পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য Logo চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন ডা. ইলিয়াছ একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত Logo ৪০তম তাফসিরুল কোরআন মহা সম্মেলন সফল করায় আলহাজ্ব রেজাউল মোহিত খানের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ Logo ইফার সাবেক ফিল্ড অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের মৃত্যুতে জেলা মউশিক কল্যাণ পরিষদ নেতৃবৃন্দের শোক

নবীগঞ্জে সাংবাদিক নির্যাতনকারী হারুন চেয়ারম্যানের খুঁটির জোড় কোথায়

  • তরঙ্গ ২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১১:৫৬:১৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০
  • ১৩৯ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় সাংবাদিক নির্যাতনকারী আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নির্যাতনের শিকার তিন সাংবাদিক। বৃহস্পতিবার ( ২৩ জুলাই)  দুপুরে স্থানীয় সরকার আইনের ৩৪ ধারা মোতাবেক সাংবাদিক নির্যাতন মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি মহিবুর রহমান হারুনের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রীর কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। মন্ত্রীর পক্ষে এ অভিযোগ গ্রহন করেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার পাল। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আসা ত্রাণ ও বয়স্ক ভাতা, প্রধানমন্ত্রীর আড়াই হাজার টাকা প্রণোদনা নিয়ে নানা অনিয়ম হলে উক্ত সংবাদ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে তুলে ধরেন কর্মরত সাংবাদিকগণ। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন ও তার লোকজন। এর প্রেক্ষিতে গত ১ এপ্রিল দেশের স্বনামধন্য জাতীয় পত্রিকা দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ এর হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি শাহ সুলতান আহমদ, সরকারের ১০টাকা কেজির চাল ও করোনা উপলক্ষে আসা সরকারের ত্রাণ বিতরণে নানা অনিয়মের কারনে ত্রাণ বঞ্চিত কিছু মানুষের কথা ফেসবুক লাইভে ও সংবাদ মাধ্যমে তুলে ধরার অপরাধে দিনদুপুরে নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি বাজারে যাত্রী ছাউনী সংলগ্ন সাথী ফার্মেসী থেকে সাংবাদিক শাহ সুলতানকে ধরে এনে নবীগঞ্জ উপজেলার ৫নং আউশকান্দি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন ও তার লোকজন প্রকাশ্যে রাস্তায় ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে পিটান।

 

এ সময় সাংবাদিক শাহ সুলতান অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে তাকে উদ্ধার করার জন্য এগিয়ে আসলে দৈনিক আমার সংবাদের প্রতিনিধি সাংবাদিক এম. মুজিবুর রহমান ও চ্যানেল এস এর প্রতিনিধি বুলবুল আহমদকে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন মারপিট করেন। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন এসে তিন সাংবাদিককে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় সাংবাদিক শাহ সুলতানকে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সাংবাদিকদের উপর হামলার ও মারপিটের ঘটনাটি সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করে। বিভিন্ন টিভিতে টকশো ও বাংলাদেশের প্রতিটি মিডিয়ায় প্রকাশ হয়। ঐ ঘটনায় নবীগঞ্জ থানায় নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষে মামলা দায়ের করেন সাংবাদিক এম. মুজিবুর রহমান। ফৌজদারী মামলা (নবীগঞ্জ থানা মামলা নং- ০৩/৬২, হবিগঞ্জ আদালতে জিআর নং- ৬২/২০২০) ঐ মামলার চার্জসীট নং-৯৭ তারিখ ৯ জুলাই ২০২০ ধারা ১২৩/৩২৩/৩৭৯/৫০৬(২)/১১৪/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০ নবীগঞ্জ থানা এফআইআর নং ০৩/৬২ তারিখ ০৩ এপ্রিল ২০২০। ধারা ১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩০৭ /৩৭৯/৫০৬(২) /১১৪/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০) ফৌজদারী মামলা থাকা সত্ত্বেও অজ্ঞাত কারনে উক্ত চেয়ারম্যানকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে এখনো বরখাস্ত করা হয়নি। বিষয়টি স্থানীয় সরকার মন্ত্রীকে অবগত করা হলে তিনি নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেন। এর প্রেক্ষিতে গতকাল নির্যাতিত সাংবাদিকদের পক্ষে অভিযোগ দেন হামলার শিকার সাংবাদিক শাহ সুলতান আহমদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ সারোয়ার শিকদার, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর মিয়া ও সাবেক সভাপতি এম এ আহমদ আজাদ। সাংবাদিকদের অভিযোগ- উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান নবীগঞ্জ উপজেলার ৫জন সিনিয়র সাংবাদিকসহ নিরপরাধ লোকজনের উপর দুটি মিথ্যা মামলা দায়ের করিয়েছেন। এছাড়াও তিনি নির্যাতিত সাংবাদিক শাহ সুলতানের বিরুদ্ধে পরপর দুটি মামলা করেছেন। তিনি চেয়ারম্যান পদে বহাল থাকায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে সাংবাদিকদের বিভিন্ন হুমকি- ধামকিও দিয়ে যাচ্ছেন। তার ত্রাণ বিতরণে ও বয়স্ক ভাতা প্রদানে অনিয়ম, বিভিন্ন ভূয়া প্রকল্পের নামে টাকা আত্মসাত এর অনিয়ম দূর্নীতি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণে আহবান জানানো হয় অভিযোগে। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার পাল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, স্থানীয় সরকারের বিধি অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হবে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত

নবীগঞ্জে সাংবাদিক নির্যাতনকারী হারুন চেয়ারম্যানের খুঁটির জোড় কোথায়

আপডেট সময় ১১:৫৬:১৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় সাংবাদিক নির্যাতনকারী আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নির্যাতনের শিকার তিন সাংবাদিক। বৃহস্পতিবার ( ২৩ জুলাই)  দুপুরে স্থানীয় সরকার আইনের ৩৪ ধারা মোতাবেক সাংবাদিক নির্যাতন মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি মহিবুর রহমান হারুনের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রীর কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। মন্ত্রীর পক্ষে এ অভিযোগ গ্রহন করেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার পাল। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আসা ত্রাণ ও বয়স্ক ভাতা, প্রধানমন্ত্রীর আড়াই হাজার টাকা প্রণোদনা নিয়ে নানা অনিয়ম হলে উক্ত সংবাদ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে তুলে ধরেন কর্মরত সাংবাদিকগণ। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন ও তার লোকজন। এর প্রেক্ষিতে গত ১ এপ্রিল দেশের স্বনামধন্য জাতীয় পত্রিকা দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ এর হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি শাহ সুলতান আহমদ, সরকারের ১০টাকা কেজির চাল ও করোনা উপলক্ষে আসা সরকারের ত্রাণ বিতরণে নানা অনিয়মের কারনে ত্রাণ বঞ্চিত কিছু মানুষের কথা ফেসবুক লাইভে ও সংবাদ মাধ্যমে তুলে ধরার অপরাধে দিনদুপুরে নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি বাজারে যাত্রী ছাউনী সংলগ্ন সাথী ফার্মেসী থেকে সাংবাদিক শাহ সুলতানকে ধরে এনে নবীগঞ্জ উপজেলার ৫নং আউশকান্দি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন ও তার লোকজন প্রকাশ্যে রাস্তায় ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে পিটান।

 

এ সময় সাংবাদিক শাহ সুলতান অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে তাকে উদ্ধার করার জন্য এগিয়ে আসলে দৈনিক আমার সংবাদের প্রতিনিধি সাংবাদিক এম. মুজিবুর রহমান ও চ্যানেল এস এর প্রতিনিধি বুলবুল আহমদকে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন মারপিট করেন। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন এসে তিন সাংবাদিককে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় সাংবাদিক শাহ সুলতানকে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সাংবাদিকদের উপর হামলার ও মারপিটের ঘটনাটি সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করে। বিভিন্ন টিভিতে টকশো ও বাংলাদেশের প্রতিটি মিডিয়ায় প্রকাশ হয়। ঐ ঘটনায় নবীগঞ্জ থানায় নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষে মামলা দায়ের করেন সাংবাদিক এম. মুজিবুর রহমান। ফৌজদারী মামলা (নবীগঞ্জ থানা মামলা নং- ০৩/৬২, হবিগঞ্জ আদালতে জিআর নং- ৬২/২০২০) ঐ মামলার চার্জসীট নং-৯৭ তারিখ ৯ জুলাই ২০২০ ধারা ১২৩/৩২৩/৩৭৯/৫০৬(২)/১১৪/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০ নবীগঞ্জ থানা এফআইআর নং ০৩/৬২ তারিখ ০৩ এপ্রিল ২০২০। ধারা ১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩০৭ /৩৭৯/৫০৬(২) /১১৪/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০) ফৌজদারী মামলা থাকা সত্ত্বেও অজ্ঞাত কারনে উক্ত চেয়ারম্যানকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে এখনো বরখাস্ত করা হয়নি। বিষয়টি স্থানীয় সরকার মন্ত্রীকে অবগত করা হলে তিনি নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ দিতে বলেন। এর প্রেক্ষিতে গতকাল নির্যাতিত সাংবাদিকদের পক্ষে অভিযোগ দেন হামলার শিকার সাংবাদিক শাহ সুলতান আহমদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ সারোয়ার শিকদার, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর মিয়া ও সাবেক সভাপতি এম এ আহমদ আজাদ। সাংবাদিকদের অভিযোগ- উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান নবীগঞ্জ উপজেলার ৫জন সিনিয়র সাংবাদিকসহ নিরপরাধ লোকজনের উপর দুটি মিথ্যা মামলা দায়ের করিয়েছেন। এছাড়াও তিনি নির্যাতিত সাংবাদিক শাহ সুলতানের বিরুদ্ধে পরপর দুটি মামলা করেছেন। তিনি চেয়ারম্যান পদে বহাল থাকায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে সাংবাদিকদের বিভিন্ন হুমকি- ধামকিও দিয়ে যাচ্ছেন। তার ত্রাণ বিতরণে ও বয়স্ক ভাতা প্রদানে অনিয়ম, বিভিন্ন ভূয়া প্রকল্পের নামে টাকা আত্মসাত এর অনিয়ম দূর্নীতি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণে আহবান জানানো হয় অভিযোগে। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার পাল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, স্থানীয় সরকারের বিধি অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হবে।