ঢাকা ০২:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত Logo গ্যানিংগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে নানা আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উদযাপন Logo মহান বিজয় দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব Logo দেশবাসীকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ‘বানিয়াচং ইসলামি নাগরিক ফোরাম’ নেতৃবৃন্দ Logo নূরানী শিক্ষা বোর্ডে মেধা তালিকায় ২য় হয়েছে গ্যানিংগঞ্জ বাজার নূরানী মাদ্রাসার ছাত্রী মুনতাহা আক্তার Logo বানিয়াচংয়ে ১২কেজি গাঁজাসহ কুখ্যাত ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo বানিয়াচং শাহজালাল কে.জি স্কুল ২০২৩ বৃত্তি পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য Logo চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন ডা. ইলিয়াছ একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত Logo ৪০তম তাফসিরুল কোরআন মহা সম্মেলন সফল করায় আলহাজ্ব রেজাউল মোহিত খানের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ Logo ইফার সাবেক ফিল্ড অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের মৃত্যুতে জেলা মউশিক কল্যাণ পরিষদ নেতৃবৃন্দের শোক

কমলা বিবি হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানাকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্যা

  • তরঙ্গ ২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১০:৪৪:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ অগাস্ট ২০২০
  • ১৫০ বার পড়া হয়েছে

মোক্তাদির হাসান সেবুল, বানিয়াচং :হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে কমলা বিবি হত্যার ঘটনায় থানাকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্যাহ (বিপিএম, পিপিএম)। রোববার (২ আগস্ট ) দুপুর ১২টায় দেশমুখ্য পাড়ার নিহত কমলা বিবির বাড়ির সামনে এলাকার শত শত মানুষের উপস্থিতে তদন্তের পর ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বানিয়াচং থানার ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
সূত্রে জানা যায়, গত ২২ জুলাই সকাল ১১ টায় নিহত কমলা বিবির পুত্রবধুর সাথে ঘাটে নৌকা বাঁধাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী লুকুর সাথে ঝগড়া হয়। এ সময় লুকু গংরা পুত্রবধুকে ব্যাপক মারধোর করতে থাকে।

এ সময় লুকু গংদের হাত থেকে পুত্রবধুকে বাঁচাতে কমলা বিবি এগিয়ে আসলে তাকেও উপর্যপুরি কিল-ঘুষি মারতে থাকে লুকু গংরা। কিল-ঘুষি খেয়ে কমলা বিবি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

 

এলাকাবাসী উদ্ধার করে বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার ওসি মোহাম্মদ এমরান হোসেন, ওসি তদন্ত প্রজীত কুমার দাস, এস আই আব্দুছ ছাত্তার হাসপাতালে গিয়ে মহিলা পুলিশের সহায়তায় নিহতের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জে মর্গে প্রেরণ করেন।

কমলা বিবি হত্যাকান্ড নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়া সরব হলে পুরো জেলাজুড়ে তোলপার সৃষ্টি হয়।

২৪ জুলাই নিহতের পুত্র এনায়েত হোসেন বাদী হয়ে ১৪ জন ও অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে বানিয়াচং থানায় একটি লিখিত এজাহার দাখিল করেন। কমলা বিবি হত্যাকান্ডের ঘটনায় ময়না তদন্তের রিপোর্টের আগে মামলা নিতে অপারগতা প্রকাশ করে বানিয়াচং থানা পুলিশ। এরপর ইউএনও বরাবরে স্মারকলিপি দেন এলাকাবাসী। এরই প্রেক্ষিতে রোববার (২ আগস্ট) বানিয়াচং এসে ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে পুলিশকে কমলা বিবি হত্যার ঘটনায় মামলা নিতে নির্দেশ প্রদান করেন পুলিশ সুপার।এতে এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিক মঈন উদ্দিন এঁর পিতার মৃত্যুতে তরঙ্গ২৪.কম পরিবার গভীরভাবে শোকাহত

কমলা বিবি হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানাকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্যা

আপডেট সময় ১০:৪৪:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ অগাস্ট ২০২০

মোক্তাদির হাসান সেবুল, বানিয়াচং :হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে কমলা বিবি হত্যার ঘটনায় থানাকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিলেন হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্যাহ (বিপিএম, পিপিএম)। রোববার (২ আগস্ট ) দুপুর ১২টায় দেশমুখ্য পাড়ার নিহত কমলা বিবির বাড়ির সামনে এলাকার শত শত মানুষের উপস্থিতে তদন্তের পর ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বানিয়াচং থানার ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
সূত্রে জানা যায়, গত ২২ জুলাই সকাল ১১ টায় নিহত কমলা বিবির পুত্রবধুর সাথে ঘাটে নৌকা বাঁধাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী লুকুর সাথে ঝগড়া হয়। এ সময় লুকু গংরা পুত্রবধুকে ব্যাপক মারধোর করতে থাকে।

এ সময় লুকু গংদের হাত থেকে পুত্রবধুকে বাঁচাতে কমলা বিবি এগিয়ে আসলে তাকেও উপর্যপুরি কিল-ঘুষি মারতে থাকে লুকু গংরা। কিল-ঘুষি খেয়ে কমলা বিবি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

 

এলাকাবাসী উদ্ধার করে বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার ওসি মোহাম্মদ এমরান হোসেন, ওসি তদন্ত প্রজীত কুমার দাস, এস আই আব্দুছ ছাত্তার হাসপাতালে গিয়ে মহিলা পুলিশের সহায়তায় নিহতের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জে মর্গে প্রেরণ করেন।

কমলা বিবি হত্যাকান্ড নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়া সরব হলে পুরো জেলাজুড়ে তোলপার সৃষ্টি হয়।

২৪ জুলাই নিহতের পুত্র এনায়েত হোসেন বাদী হয়ে ১৪ জন ও অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে বানিয়াচং থানায় একটি লিখিত এজাহার দাখিল করেন। কমলা বিবি হত্যাকান্ডের ঘটনায় ময়না তদন্তের রিপোর্টের আগে মামলা নিতে অপারগতা প্রকাশ করে বানিয়াচং থানা পুলিশ। এরপর ইউএনও বরাবরে স্মারকলিপি দেন এলাকাবাসী। এরই প্রেক্ষিতে রোববার (২ আগস্ট) বানিয়াচং এসে ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে পুলিশকে কমলা বিবি হত্যার ঘটনায় মামলা নিতে নির্দেশ প্রদান করেন পুলিশ সুপার।এতে এলাকাবাসীর মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে।